এবার কোরবানি দেওয়া হয়নি

34

করোনার কারণে এবারের ঈদটাও ঘরবন্দী কাটাচ্ছি। কারও সঙ্গে দেখা করার সুযোগ হয়নি। আর সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে, এবার কোরবানি দেওয়া হয়নি। প্রতি বছর খুব আনন্দের সঙ্গে কোরবানি দিয়ে থাকি। এ বছর করোনার কারণে অনেকেই অসহায় হয়ে পড়েছে। শুরু থেকেই চেষ্টা করে আসছি, তাদের পাশে দাঁড়াতে। এবারের কোরবানির অর্থ সেসব মানুষের সেবায় ব্যয় করেছি।

ঈদের আনন্দটাও ফিঁকে হয়ে গেছে। ঈদের মতো বিশেষ দিনেও ঘরে সাদামাটা করে কাটাতে হচ্ছে। গত রোজার ঈদ যেমন কাটিয়েছি, এবারও সেভাবেই কাটছে। ঈদের টিভি অনুষ্ঠানগুলো দেখছি। পরিবারের সঙ্গে আনন্দ করছি, এই তো। এর বেশি কিছু তো হচ্ছে না। অথচ আগের ঈদগুলো কতই না আনন্দের ছিল।

ঈদে কোলাকুলি আর মুসাফাহা না করলে ঈদ, ঈদই মনে হয় না। সকালে ঈদের জামাতে নামাজ আদায় করার দিনগুলো খুব মিস করছি। এতদিন শৈশবের স্মৃতিগুলো খুব মিস করতাম। এখন স্বাভাবিক সময়টাকে খুব মিস করছি। স্বপ্নের মতো সেই দিনগুলো চোখের সামনে বারবার ভেসে উঠছে। বাসায় থাকতে থাকতে বোর হয়ে যাচ্ছি। কিন্তু কি করার, উপায়ও তো নেই। তাই বাধ্য হয়ে ও পরিবারের কথা চিন্তা করে বাসায়ই অবস্থান করছি।

সারা বছরের ব্যস্ততা ভুলে ঈদের সময়গুলোতেই আত্মীয়-স্বজনরা সবাই মিলে এক হতাম। সবার সঙ্গে দেখা, বাসায় যাওয়া-আসা, আনন্দ ফুর্তি করে ঈদের দিনগুলো কাটানো হতো। কিন্তু এবারও যে যার মতো বাসায়। ফোনে কথা হচ্ছে, কিন্তু তাতে কি আর সেই আনন্দ এনে দিতে পারে। এখন শুধু অপেক্ষা, কবে আবার সব কিছু স্বাভাবিক হবে। আবার আমরা স্বাধীন ভাবে চলাফেরা করব। সেই দিনগুলোর স্বপ্নই এখন দেখছি।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More