কঠোর আন্দোলনের হুমকি আল্লামা শফীর

47

এবার আহমদীয়া মুসলিম জামাত নামে পরিচিত কাদিয়ানীদের দমনে কঠোর আন্দোলনের হুমকি দিয়েছেন হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক বার্তায় তিনি এ হুমকি দেন।

আল্লামা শাহ আহমদ শফী বলেন, ‘চলতি মাসে পঞ্চগড়ে কাদিয়ানীরা ইজতেমা করার দুঃসাহস দেখিয়েছে, তা অচিরেই বন্ধ করতে হবে। অন্যথায় এ অপতৎপরতা বন্ধে খতমে নব্যুয়ত আন্দোলনের সঙ্গে এক হয়ে কঠোর আন্দোলনে নামবে হেফাজতে ইসলাম।’

তিনি বলেন, ‘মুসলিম উম্মাহর শত্রু আহমদীয়ারা সরলমনা মুসলমানদের ধোঁকা দিয়ে ঈমানহারা করছে। তাদের এ জঘন্য ষড়যন্ত্র শিগগিরই বন্ধ করতে সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি। এ নগ্ন আস্ফালন বন্ধ না করলে পাকিস্তানের মতো বাংলাদেশেও কাদিয়ানীদের ‘অমুসলিম ঘোষণা’ করা হবে।’

হেফাজতের আমির বলেন, ‘এই কাদিয়ানিইজমের উৎপত্তি হয় পাকিস্তানে। ১৯৭৪ সালের ৭ সেপ্টেম্বর সে দেশে জাতীয় পরিষদ সংবিধান সংশোধন করে কাদিয়ানীদের অমুসলিম সংখ্যালঘু ঘোষণা করে। এরপর বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তাদের অমুসলিম ঘোষণা করা হয়েছে। বাংলাদেশেও তাদের অমুসলিম ঘোষণা করার জোর দাবি জানাচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘দেশে বিভিন্ন ধরনের সম্প্রদায় রয়েছে এবং তারা নিজ সম্প্রদায়ের পরিচয় বহন করছেন। কিন্তু একমাত্র কাদিয়ানীরা অমুসলিম হওয়া সত্ত্বেও আহমদীয়া মুসলিম জামাত নাম ধারণ করে মুসলমানদের ধোঁকা দিচ্ছে। তারা নিজেদের মুসলিম দাবি করে বিশ্বনবীর খতমে নব্যুয়তকে পদদলিত করে যাচ্ছে।’

আহমদ শফী আরো বলেন, ‘হযরত মুহাম্মদ (দ.) সর্বশ্রেষ্ঠ ও সর্বশেষ নবী। তার মাধ্যমে নব্যুয়তের ধারাবাহিকতা সমাপ্ত হয়ে গেছে। এটি অস্বীকার করে কথিত নব্যুয়ত দাবি করে ব্রিটিশদের দালাল গোলাম আহমদ কাদিয়ানী। এর মাধ্যমে তিনি মুসলমানদের ধোঁকা দিয়ে বোকা বানাতে চেষ্টা করেন। এই ভণ্ড গোলাম আহমদ ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে প্রকাশ্য প্রোপাগান্ডায় লিপ্ত হয়েছিলেন।’

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

WP Twitter Auto Publish Powered By : XYZScripts.com