বিদায়ের পর মুশফিক বললেন ‘এটা গর্বের’

34

ষষ্ঠ বিপিএলে চিটাগং ভাইকিংসের শুরুটা হয়েছিল দুর্দান্ত। টুর্নামেন্টের প্রথম ছয় ম্যাচের পাঁচটিই জিতেছিল মুশফিকুর রহিমের দল। কিন্তু তারপরই যেন ভূতে ধরল! তার পরের সাত ম্যাচে চিটাগং জিততে পেরেছে মাত্র এক ম্যাচ! আজ এলিমিনেটর ম্যাচে ঢাকা ডায়মাইটসের বিপক্ষে বড় ব্যবধানে হেরে টুর্নামেন্ট থেকেই ছিটকে পড়েছে চিটাগং। তবে তারপরও মুশফিকুর রহিম বলছেন চিটাগংয়ের জন্য এবারের টুর্নামেন্টটা গর্বের।

অভিজ্ঞ ক্রিকেটার এমন দাবি অবশ্য করতেই পারেন। দল গোছাতে খুব বেশি অর্থ খরচ করেনি চিটাগং। অন্য দলগুলো যেখানে টি-টোয়েন্টির বিশ্বনন্দিত ক্রিকেটারদের দলে এনে ভিড় জমিয়েছে সেখানে চিটাগংয়ে ‘বড় তারকা’ নেই বললেই চলে। এমন দল নিয়ে শেষ চারে যাওয়াটা তো কম অর্জনের নয়। ম্যাচ শেষে মুশফিকুর রহিম বোঝাতে চাইলেন সেটাই।

এলিমিনেটরের বড় হার প্রসঙ্গে প্রশ্ন উঠলে মুশফিক বলেন, ‘একটা ভালো প্রতিযোগিতাপূর্ণ ম্যাচ হবে, সেটাই সবার প্রত্যাশা করেছিলাম। উইকেট ভালো ছিল। আমরা ১৬০ রানের মত করতে পারলেও ঢাকাকে চাপে রাখতে পারতাম। সেটা হয়নি। আর আমাদের উপরের সারির ব্যাটসম্যানদের ছোট ছোট ভুল হয়েছে। কিছু ব্যাটসম্যান উইকেটে সেট হয়েও বড় রান করতে পারেনি। এমন দলের বিপক্ষে এত ভুল করলে জেতা কঠিন হয়। সেদিক থেকে হতাশার। তবে সবমিলিয়ে বলব যে দল নিয়ে টুর্নামেন্ট খেলেছে ভাইকিংস তাদে এতদূর আসতে পারাটা অবশ্যই গর্বের বিষয়।’

মুশফিক বলেন, ‘আমাদের লাইনআপে এক্সপ্রেস বোলার বা হাইকোয়ালিটি বোলার ছিলো না। ভালো খেলোয়াড় হয়তো ছিলো। কিন্তু তারা সেভাবে পারফর্ম করতে পারেনি। সিকান্দার রাজা, ডেলপোর্ট আগে এখানে (বিপিএল) খুব ভালো খেলেছে কিন্তু এবার সেভাবে জ্বলে উঠতে পারেনি। আবার রবি ফ্রাইলিঙ্ক প্রতাশার চেয়েও ভালো খেলেছে। আমাদের স্থানীয়রা অনভিজ্ঞ। বিদেশিরা যদি আরো একটু ভালো খেলতো, তাহলে আমরা হয়তো আরও ভালো করতে পারতাম।’

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

WP Twitter Auto Publish Powered By : XYZScripts.com